জুয়ার টাকা না দেয়ায় বন্ধুর স্ত্রীকে ৩ মাস ধর্ষণ

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় জুয়ার আসরে ধার নেয়া টাকা পরিশোধ করতে না পারায় বন্ধুর স্ত্রীকে টানা তিন মাস ধরে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে। শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) এ ঘটনায় সুন্দরগঞ্জ থানায় মামলা দায়েরের পর অভিযুক্ত আনারুল ইসলামকে (২৫) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
স্থানীয়রা জানান, একই গ্রামের আনারুল ইসলাম ভুক্তভোগীর স্বামীর ঘনিষ্ঠ বন্ধু। আনারুল ওই নারীর স্বামীকে প্রায়ই জুয়ার আসরে টাকা ধার দিত। এক পর্যায়ে ধারের পরিমাণ বেড়ে যায়। ধার নেয়া টাকা পরিশোধ করতে না পেরে ওই ব্যক্তি বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। এরপরে পাওনা টাকার অজুহাতে আনারুল ইসলাম ওই বাড়িতে যাতায়াত করতে থাকে। একদিন বাড়িতে স্বামী না থাকার সুযোগে রাতে আনারুল ইসলাম নারীর ঘরে ঢুকে তাকে ধর্ষণ ও ভিডিও ধারণ করে। পরবর্তীতে ভিডিও ছড়িয়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে তিন মাস ধরে ধর্ষণ করতে থাকে। বেশ কিছু দিন পালিয়ে থাকার পর ওই নারীর স্বামী বাড়ি ফিরলে তাকে জমি বন্ধক রাখার কথা বলে আনারুল রেজিস্ট্রি অফিসে নিয়ে যায়। সেখানে তার কাছ থেকে সাড়ে সাত শতক জমিও দলিল করে নেয়। এক পর্যায়ে তার ঘরে তালা দিয়ে ঘর দখল করে নেয়। ভুক্তভোগী নারী ধুবনী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে অভিযোগ করতে গেলে ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসে।
শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) রাতে এ ঘটনায় ওই নারী বাদী হয়ে আনারুল ইসলামকে আসামি করে সুন্দরগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ওই রাতেই পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। বিষয়টি নিশ্চিত করে সুন্দরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুলাহিল জামান জানান, আজ রোববার (২৮ ফেব্রুয়ারি) প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আনারুল ইসলামকে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

লেখাটি ভালো লাগলে- লাইক, কমেন্ট ও শেয়ার করুন